কথায় আছেনা, মক্কার মানুষ হজ্ব পায়না

আচ্ছা বন্ধুরা, আমার এই কথাগুলি কি আপনারা বিশ্বাস করবেন? আমি software quality assurance & testing department-এ কাজ করি। ডেস্কটপ ও ওয়েব এ্যাপ্লীকেশন টেষ্ট করা ও তার কোয়ালিটি নিশ্চিত করা আমার কাজ। আমি যদি বলি যদিও আমার অফিসে পিসি ও ইন্টারনেট আছে, আমার বাসায় কোন পিসি বা নেট কানেকশন নেই, তবে বিশ্বাস যোগ্য হবে? হবে না, তাই না? বা একটা হোটেলের একজন বাবুর্চী যদি বলে সে খাদ্যাভাবে কষ্ট পায় সেটাও হয়তো আমরা বিশ্বাস করবো না, তাই না?

সকালে অফিস আসতে খুব অল্প রাস্তাই হাঁটতে হয়। মানে বাসা থেকে মেইন রাস্তায় (বাস ষ্ট্যান্ড) আসতে এই আধা কি এক কিলোমিটার হবে হয়তো। তো আমি যখন এই সামান্য রাস্তাটুকু হাঁটি মেইন রাস্তার দিকে তখন প্রায় ১০০ কি ১৫০শত মানুষ আমার বিপরিতে হেঁটে যায়। আমাকে খুব সাবধানেই হাঁটতে হয় ঐ সামান্য রাস্তাটুকু। কারন ওরা ৯৫% ই মহিলা/মেয়ে আর ওদের হাঁটার গতি আমার গতির চাইতে প্রায় ৩ গুন বেশি থাকে। ওরা গার্মেন্টস্‌ শ্রমিক।

আমি চোখে দেখে সার্ভে করে যতোটুকু বুঝলাম ওরা ১০০% ই সামারের পোষাকে ফ্রাক্টরী যায়। বিশ্বাস করুন আমি খুব দ্রুত সকলকে পর্যবেক্ষন করেছি। কারো গায়ে চাদর, জ্যাকেট, সোয়েটার, শাল, মাফলার, কানটুপি দেখিনি। যেহেতু প্রায় ৯৫% মেয়ে, আমি দেখেছি ওদের গায়ে ওড়নাটাই যেন শীতের পোষাক হয়ে আছে। হাতদুটি ভেতরে গুজানো, ঠিক নামাজে যেভাবে হাত বেঁধে দাঁড়াই। কেউ কেউ যেন একটু কাঁপেও শীতে। কিন্তু আমার অনুভুতি এমন হলেও ওরা বান্ধবীরা কিন্তু হাসতে হাসতেই দ্রুত গতিতে গল্প করতে করতে পথ চলে।

পোষাক নিয়েই যারা কাজ করে তাদেরি শীতের পোষাক নেই। আচ্ছা ব্যাপারটা তবে কি এমন যে মক্কার মানুষ হজ্ব পায়না। হতে পারে হয়তো ঐ ফ্যাক্টরীটা এমন কিছু বানায় যা পোষাক পর্যায়ে পরেনা। কিন্তু তাই বলে অলমোষ্ট ১০০% জনেরই শীতের পোষাক নেই। বর্ষা কালে আমি এটাও খেয়াল করেছি যে ওদের ছাতাও থাকেনা। গুড়ী গুড়ী বৃষ্টিতে হনহন করে হেঁটেই যায় আর হেঁটেই যায়। বৃষ্টি, শীল, শীত না রোদ কিছুই যেন ওদের যায় আসেনা।

আচ্ছা, তবে কি গার্মেন্ট ফ্যাক্টরীরা দুনিয়ার মানুষের পোষাক চাহিদা মেটাতে পারলেও ওদের নিজেদের কর্মীর প্রয়োজনীয় পোষাক চাহিদা মেটাতে অক্ষম। তবে সম্ভবত সকল ফ্যাক্টরীর এক অবস্থা নয়। আমার এলাকার ওরা শীতবস্ত্রহীন হলেও অন্য এলাকার কর্মীদের গায়ে অবশ্য শীতবস্ত্র দেখেছি।

তেমন কিছু না। একটা অবজার্ভেশন শেয়ার করলাম মাত্র।
ছবি: ইন্টারনেট থেকে সংগ্রহ করা।

This entry was posted in ভাবনা. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s